জীবনের কষ্ট সবচেয়ে একটা জায়গায়-ই। আমার মা নেই। চিকিৎসার অভাবে মা মারা যায়। ঠিক মতো চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারি নাই আমরা। এখানে সেখানে মা কে নিয়ে দৌঁড়াইছিলাম চিকিৎসার জন্য।

18953382_1899473030334032_3684657871842729793_o

“আমি ঢাকা আসি ১৯৯৫ সালে, তখন মনে হয় আমার বয়স ছিল ২-৩ বছর। বাবা মাছ ব্যবসায়ী। আমার পড়ালেখা ঐ প্রাইমারি স্কুল পর্যন্তই, ক্লাস ৫ এর পর আর স্কুলে যাই নাই। সত্যি বলতে পড়তে লিখতে ভালো লাগতো না। আমি কাজ শুরু করি ২০০৪ সালে। সেই তখন থেকে নিয়ে আজ পর্যন্ত এই প্রিন্ট সেক্শনেই কাজ করতেছি। এই এলাকায় আছি প্রায় ৪ বছর হলো আর এই ফ্যাক্টরিতে কাজ করতেছি ৬ মাস ধরে। আমার পরিবারে আমি, আমার চার বোন আর একটা ছোট ভাই আছে। ছোট ভাইটা বাবার সাথে মাছের ব্যবসা করে।

জীবনের কষ্ট সবচেয়ে একটা জায়গায়-ই। আমার মা নেই। চিকিৎসার অভাবে মা মারা যায়। ঠিক মতো চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারি নাই আমরা। এখানে সেখানে মা কে নিয়ে দৌঁড়াইছিলাম চিকিৎসার জন্য। কিন্তু ঠিক চিকিৎসা করতে পারি নাই। এই জীবন আমার। এই ভবিষ্যৎ। বাবা চাইছিলো আমি যাতে নেভি-তে যোগ দেয়। আমার একটা কথা মনে পড়লে সবচেয়ে খারাপ লাগে। আমি মাকে অনেক কষ্ট দিছি। মা চাইছিলো আমি ভালো ব্যবসা করি, শিক্ষিত হই। কিন্তু আমি তো মায়ের স্বপ্নটা পূরণ করতে পারি নাই। আজকে মা তো আমাকে ছেড়ে চলে গেছে। পাঁচ বছর হলো বিয়ে করছি আমি। প্রেম করেই বিয়ে। আমার বৌ ছয় মাসের অন্ত:সত্ত্বা। সন্তানটা আমার পৃথিবীর মুখ দেখুক, ভালো মানুষ হউক এটাই চাই। কিন্তু আমার মা যদি তার নাতির চেহারাটা দেখতে পারতো….. এইটাই কষ্ট শুধু।” – একজন গার্মেন্টস কর্মী


“I was only 2 or 3 years old when I came to Dhaka in the year 1995. My father is a fishmonger. I only studied till grade 5 at primary school. To be honest, I was never fond of studying. I started working in 2004. And ever since then I have been working in this print section. I have been in this area for about 4 years, and in this factory for about 6 moths now. My family consists of my four sisters and a younger brother. My brother helps my father in the business.

There is only one difficult part in my life. My mother is not with us anymore. She away due to lack of proper treatment. It was not possible to arrange proper treatment for her cure. We tried different places for opinions but did not get the right place for the treatment. That’s my life. That’s my future. My father wanted me to join the navy. It pains me to realize that I have hurt my mother. She wanted me to do a good business, for me to be educated. But I could not fulfill her dreams. Today, she has left us all. It has been five years since I got married. My wife is six month’s pregnant. I only wish that my son comes into this world; grow up to be a good person. Only if my mother was able to see her grandson… that’s the only regret.” – An employee at a garment factory

This story is featured in Made In Equality, an initiative supported by C&A Foundation.