ছেলে মেয়েদের নিয়েও আমাদের অনেক স্বপ্ন। তাই ছোট মেয়েটার বয়স ৯ মাস হয়া সত্ত্বেও আবার গার্মেন্টসে কাজ করা শুরু করেছি।

19055022_1899332183681450_7825784438806227571_o

“আমি ক্লাস ফাইভে থাকতে শরিয়তপুর থেকে ঢাকায় আসি। পি এস সিতে রেজাল্ট খারাপ ছিলনা: ৪.৫৮। ইচ্ছা ছিল নার্স হব। কিন্তু অভাবের মধ্য সেটা আর হয়ে উঠেনি। ৪ বছর আগে গারমেন্টসে্ কাটিং হেল্পার হিসেবে কাজ শুরু করি। বিয়ে হয়ে যাওয়ার পর ছেড়ে দেই। আমাদের দুজনেরি বাবা মা ঢাকায় থাকে। আমার স্বামী ইউনিলিভার এ চাকরি করে কিন্তু তাতে সবার দায়িত্ব স্বাচ্ছন্দে পুরন করা সম্ভব হয় না। ছেলে মেয়েদের নিয়েও আমাদের অনেক স্বপ্ন। তাই ছোট মেয়েটার বয়স ৯ মাস হয়া সত্ত্বেও আবার গার্মেন্টসে কাজ করা শুরু করেছি। বেতনো ভাল পাই। কষ্ট করে হলেও ছেলে মেয়ে পড়াশোনা করবে, বড় কিছু হবে এটাই আমাদের আশা।”

– একজন গার্মেন্টস কর্মী


“I came to Dhaka from Shariatpur when I was in class five. Result in PSC was not bad; I got a 4.58. I wanted to be a nurse. But given our financial situation, it was a farfetched dream. 4 years ago, I started working at a garment factory as a cutting helper. However, after getting married, I left the job. Both our parents live in Dhaka. My husband holds a job at Unilever. But with the salary he earns alone, it is difficult to fulfill all the family responsibilities. We also have a lot of dreams and aspirations for our children.

Thus, I have started working again at a garment factory. My youngest daughter is only nine months old, so it has been a tough choice to resume work now. Pay is good. As long as my children are studying, I don’t mind working hard.”

– Employee at a garment factory

This story is featured in Made In Equality, an initiative supported by C&A Foundation.