আমি আগে গার্মেন্টসেই কাজ করতাম। কিন্তু এখন পড়াশোনা না জানলে গার্মেন্টসে চাকরি পাওয়া যায় না। তাই সেটা ছেড়ে বাসার কাজ শুরু করেছি। আমার বেতন মাত্র ২৫০০ টাকা। এই টাকা দিয়ে, ঢাকায় একা বসবাস করা অত্যন্ত কঠিন।

26758698_2001241830157151_1243154267375572618_o

[Part 1/3]

“আমি আগে গার্মেন্টসেই কাজ করতাম। কিন্তু এখন পড়াশোনা না জানলে গার্মেন্টসে চাকরি পাওয়া যায় না। তাই সেটা ছেড়ে বাসার কাজ শুরু করেছি। আমার বেতন মাত্র ২৫০০ টাকা। এই টাকা দিয়ে, ঢাকায় একা বসবাস করা অত্যন্ত কঠিন। আমার ভাগ্য ভালো যে, এই দুঃসময়ে বোনকে পাশে পেয়েছি। ওর সাথেই থাকি আমি। আমার বিয়ে হয়েছিলো অনেক আগে। আমার স্বামী আমাকে ছেড়ে, আমাদের গ্রামের আরেক মেয়েকে বিয়ে করে । তখন থেকেই একা আছি। যদি আমার বোনের সাহায্য না থাকতো, কোনভাবেই আমি স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারতাম না। ও আমার জীবনে কোন আশীর্বাদ থেকে কম না।

এখানে, আমাদের সব প্রতিবেশী একি এলাকার। প্রায় সময়ই মিলেমিশে থাকি। মাঝেমাঝে যদিও, এতোটা মিল থাকেনা। প্রায়ই ঝগড়া বিবাধ বেঁধে যায়। কিন্তু, তাও এর মধ্যে একটা ভালোবাসা আছে।” – একজন গার্মেন্টস কর্মী


“I used to work in a garment factory. After I took a break a few years ago, I have not been able to get back in this field. Landing a job has become a lot more competitive now and they don’t take workers without any formal education anymore. So now I work as a housemaid. My salary is only 2500 taka per month. It’s extremely difficult to live alone in this city with this little money. I am fortunate to have my sister by my side. I live with her. I was married a long a time back. My husband left me and got married to another girl in our village. I have been alone ever since. If I didn’t have my sister’s support, I could not have continued my life like this. She is no less than a blessing in my life.

Here, all our neighbours are from the same area. We live in harmony most of the time. However, sometimes it is not so peaceful. Sometimes people quarrel and bicker amongst each other but there is a kind of love in that as well.” – An employee at a garment factory

This story is featured in Made In Equality, an initiative supported by C&A Foundation.